শিরোনাম



স্টাফ রিপোর্টারঃ
মোঃ কবির (৩৫) শারিরীক প্রতিবন্ধী। চার সন্তানের জনক। মোঃ কবির তার স্ত্রী সন্তান সহ মাকে নিয়ে রিকশা চালিয়ে যে আয় রোজগার হয় তা দিয়ে খেয়ে না খেয়ে দিনাতিপাত করে আসছে।প্রতিবন্ধী কবিরের গ্রামের বাড়ী সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার জাউয়া বাজার ইউনিয়নের দক্ষিণ বড় কাপন। তার পিতা মৃত আনকার আলী। কবিরের বাবা মারা যাওয়ার পর সংসারে হাল ধরতে হয়েছে তাকে। এলাকা ছেড়ে অন্যত্র ভিক্ষা করতে হয়েছে অনেক দিন। ভিক্ষা করার ফাঁকে ফাঁকে কবির এক মোবাইল সার্ভিসিং সেন্টারে মোবাইল মেরামতের কাজ শিখে। এরপর কবির নিজ এলাকায় এসে মোবাইল সার্ভিসিং সেন্টার খুলে ব্যবসা শুরু করে। নিজস্ব পুঁজি না থাকায় ব্যবসায় তেমন সুবিধা করতে পারেনি সে।প্রতিবন্ধী কবির এক সময় রিকশা চালানো শিখে রাখে।ফলে সে একটা অটো রিকশা এক মালিকের নিকট হতে শর্ত মোতাবেক চেয়ে নেয়।প্রায় এক বছর ধরে কবির অটো রিকশা চালিয়ে যে আয় রোজগার হয় তা দিয়ে খেয়ে না খেয়ে সংসার চালায়।ভাড়ায় চালিত অটো রিকশা দিয়ে তেমন সুবিধা করতে পারেনি প্রতিবন্ধী কবির।সন্তানের পড়াশোনা খরচ সহ অন্যান্য খরচের পরিমাণ দিনদিন বেড়েই চলেছে। বাড়ছে না কবিরের ইনকাম।প্রতিবন্ধী কবিরের সাথে কথা হলে সে বলে “রিকশাটা ভাড়ায় চালাই, এর লাগি সংসার চালাইতে আমার খুব কষ্ট অয়, নিজের অইলে আমার জানখান রক্ষা অইলনে। দুই পয়সা বেশি অইলনে”। আমি একখান রিকশা সাহায্য চাই। প্রতিবন্ধী মোঃ কবির একটা অটো রিকশার মালিক হতে চায়।সে ঘুরে দাঁড়াতে চায়। সে নিজ পরিশ্রমে প্রতিষ্ঠিত হতে চায়। এ ব্যপারে প্রতিবন্ধী মোঃ কবির এলাকার সমাজ সেবক, জনপ্রতিনিধি, দানবীর দেশ বিদেশে কর্মরত বিত্তবান সহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসক সহ সাংসদদের সাহায্য কামনা করছে।মানবিক সহায়তা হিসেবে কেউ তার পাশে দাঁড়াতে চাইলে ০১৭৪৭৯১৯২৬১ নাম্বারে যোগাযোগ করে তাকে সাহায্য করার অনুরোধ জানিয়েছে।

শান্তিবার্তা ডটকম/১৮ ডিসেম্বর ২০২০/ মোশফিকুর