শিরোনাম


Spread the love

স্টাফ রিপোর্টারঃ

ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রনালয়ের অধীনে অসহায় দারিদ্রদের মাঝে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলায় ৩০ টি পরিবারের মাঝে ঘর নির্মাণ করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে ধর্মপাশা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সুত্রে জানাযায়। প্রতিটি ঘরের মুল্য বাবদ দরা হয়েছে প্রায় ২ লক্ষ ৯৯ হাজার ৮ শত ৬০ টাকা। সর্ব মোট ৩০টি ঘরে খরচ হয়েছে প্রায় ৮৯ লক্ষ, ৯৫ হাজার, ৮ শত টাকা। এব্যাপারে উপকার ভোগীর কাছে জানতে চাইলে ধর্মপাশা উপজেলায় সেলবরষ ইউনিয়নের বশির আহমেদ জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ তহবিল হতে আমি একটি ঘর পেয়েছি। ঘরটি পেয়ে আমি খুব আনন্দিত। আমার ছেলে মেয়ে সহ সবাই নিরাপদে বসবাস করতে পারব। বাদশাগঞ্জ বাজারের মওলানা আনোয়ার হোসেন বলেন, আমি সাধারণ একজন ইমাম বটে, এই ঘর নির্মাণ করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়, আমাদের মাননীয় সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন মহোদয়ের সহযোগিতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ তহবিল হতে আমি ঘরটি পেয়েছি, এই ঘরে বসে আমি প্রধানমন্ত্রী সহ বঙ্গবন্ধুর প্রতি দোয়া প্রার্থনা করি। আমার পরিবার নামাজ ও কোর আন পড়ে দোয়া প্রার্থনা করা হয়। সুখাইর রাজাপুরে ইউনিয়নের আসমা আক্তার বলেন, এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতন স্যারের সহযোগিতায় প্রধানমন্ত্রী দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের অধীনে আমি একটি সুন্দর বাড়ী পেয়েছি এর জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনেক ধন্যবাদ। এব্যাপারে ধর্মপাশা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রজেষ চন্দ্র দাস তিনি জানান, ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রনালয়ের অধীনে ধর্মপাশা উপজেলায় ৩০ টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। অসহায় দারিদ্রদের মাঝে ঘর বিতরণ করে নির্মাণ কাজ শেষ করা হয়েছে।


সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিশ্বনেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে এগিয়ে যাবে। এসডিজির লক্ষ্য স্থায়ীত্বশীল উন্নয়ন সাধিত হচ্ছে। মহামারী করোনা ভাইরাস উন্নয়নের বাঁধা গ্রস্থ করতে পারেনী। বিভিন্ন উন্নয়ন হচ্ছে, গ্রাম হবে শহর। হাওরে গ্রাম প্রতিরক্ষা দেওয়াল, ঈদগা, খেলার মাঠ, কবরস্থান, এক পাড়া থেকে অন্যপাড়া যাতায়াতের ব্যবস্থা করা হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাওরে প্রতি আন্তরিক এর জন্য সুনামগঞ্জ টু নেত্রকোণা উড়াল সেতু হচ্ছে, পাশাপাশি জামালগঞ্জ টু সাচনা বাজার সুরমা নদীর উপর সেতু নির্মাণ করা হবে। ধর্মপাশা, জামালগঞ্জ, তাহিরপুর ও মধ্যনগর সহ বিভিন্ন রাস্তাঘাট বন্যায় ভেঙ্গে গেছে সেই রাস্তাঘাট নির্মাণ করা হবে। হাওরে অসহায় নারী পুরুষের মাঝে ঘর নির্মাণ করে আরও একটি নতুন অধ্যায় সৃষ্টি করেছেন আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। আমি সাংসদ সদস্য হিসেবে প্রধানমন্ত্রী মহোদয়কে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করি এবং ধন্যবাদ জানাই বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনাকে। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু, জয় হোক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের।

শান্তিবার্তা ডটকম/৭ সেপ্টেম্বর ২০২০/ সাইফ উল্লাহ