শিরোনাম


স্টাফ রিপোর্টারঃ

নেত্রকোণা জেলার কলমা কান্দা যাওয়া উদ্দেশ্য সুনামগঞ্জের মধ্যনগর থানা হতে একটি যাত্রী ট্রলার (নৌকা) গুমাই নদীতে গিয়ে ডুবে যায় এর মাঝে ১২ জন নিহত হওয়া খবর পাওয়া যায়। মধ্যনগর থানার মধ্যনগর ইউনিয়নের ইনাতনগর (কামাউরা) গ্রামের ১০ জনের মৃত্যু হয়। দু জনের বাড়ী অন্যত্র। সোমবার সকালে ১০ ঘটিকায় ইনাতনগর গ্রামে ১০ জন নিহত স্বজনদের কাছে গিয়ে সমবেদনা ও নগদ আর্থিক অনুদান প্রদান করেন সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন।

এসময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন মধ্যনগর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন, মধ্যনগর উপজেলা বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি এড. আব্দুল মজিদ, সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুল শহিদ আজাদ, রহুল আমিন খান, সাধারণ সম্পাদক অমরেশ চৌধুরী, ধর্মপাশা উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক শাহ আব্দুল বারেক ছোটন, সেলবরষ ইউপি আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বেনুয়ার হোসেন খান পাঠান, ধর্মপাশা উপজেলা শ্রমিকলীগের সহ সভাপতি মো. নুরুজ্জামান সহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এমপি রতন, নৌকা ডুবির নিহত লুৎফুর নাহার, মনিরা, লাকিবুর রহমান, অনিক, মজিদা, রতন, লাকী, টুম্পা, জাহিদ সহ নিহত পরিবারের মাঝে ব্যক্তিগত তহবিল হতে নগদ অর্থ বিতরণ করেন। অলৌকিক ভাবে বেচে যাওয়া শিশু তৌফিক (১১) কাছ থেকে শুনেন মর্মান্তিক ঘটনার বিবরণ, তার মা, ভাই ও বোন নৌকা ডুবিতে মৃত্যু হয়। সাংসদ সদস্য তৌফিকে বিনামুল্য লেখা পড়া করার জন্য স্থানীয় নেতা কর্মীদের নির্দেশ প্রদান করেন। এবং আর্থিক সহযোগিতার টাকা তৌফিকের হাতে তুলে দেন।

শান্তিবার্তা ডটকম/২১ সেপ্টেম্বর ২০২০/ সাইফ উল্লাহ