শিরোনাম


ডেস্ক নিউজঃ

সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অনুমতি ছাড়া মামলা করা যাবে না, এ সংক্রান্ত একটি চিঠি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে আইন ও বিচার বিভাগের সচিব বরাবর পাঠানো হয়েছে। এছাড়া চিঠিটির অনুলিপি দেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব, সব মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিভাগীয় কমিশনার এবং জেলা প্রশাসকদের কাছে। নির্দেশনার ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে চিঠিতে।

চিঠিতে বলা হয়- ইদানীং লক্ষ্য করা যাচ্ছে, দেশের বিভিন্ন জায়গায় সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হচ্ছে। সরকারি দায়িত্ব পালন করার পর সেটা মনঃপূত না হওয়ায় অনেকে ব্যক্তিগতভাবে মামলা ঠুকে দিচ্ছেন। এতে করে আইন কার্যকর, শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা এবং অপরাধ দমনে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে গিয়ে বাধাগ্রস্ত হচ্ছেন দায়িত্বশীলরা। তাই সরকারি কর্মকর্তাদের নির্বিঘ্নে দায়িত্ব পালনের ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে হবে।

চলতি মাসের শুরুতেই এমন একটি ঘটনা ঘটেছে মাদারীপুরে। ড্রেজার পোড়ানোর অভিযোগ এনে ডিসি ড. রহিমা খাতুনসহ ৬ সরকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন স্থানীয় দুই ব্যবসায়ী। ইতোমধ্যে ওই মামলার তদন্ত শুরু হয়েছে। আর তাতে করে বিভিন্নভাবে সরকারি কাজ বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে।

অবশ্য সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অনুমতি ছাড়া মামলা না করতে পারার বিষয়টি নতুন কিছু নয়। অনেক আগে থেকেই এটা আইন দ্বারা সিদ্ধ। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে পাঠানো চিঠিতে সেটা মনে করিয়ে দেওয়া হয়েছে। ১৮৯৮ সালের ফৌজদারি কার্যবিধির সাব-সেকশন-১ অনুযায়ী- ‘ম্যাজিস্ট্রেট, বিচারক, সরকারি কর্মকর্তার দায়িত্ব পালনের পর সেই কাজের জন্য সরকারের অনুমতি ছাড়া তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা যাবে না।’

একই কথা বলা আছে ১৮৫০ সালের ‘জুডিশিয়াল অফিসার্স প্রোটেকশন অ্যাক্ট’ এবং হালের মোবাইল কোর্ট আইন, ২০০৯-এর ১৪ নম্বর ধারায়। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে পাঠানো চিঠিতে এসব আইন উদ্ধৃত করে এ ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে।

শান্তিবার্তা ডটকম/৯ সেপ্টেম্বর ২০২০