শিরোনাম
  সুনামগঞ্জে হাওরডুবি হলে দায় প্রশাসন ও পাউবো কে নিতে হবে- হাওর বাঁচাও আন্দোলন       পিকেসিএসবিডির ট্যালেন্ট হান্ট বাছাইয়ে জাতীয় পর্যায়ে সুযোগ পেলেন ছাতকের তিন ক্রিকেটার       দক্ষিণ সুনামগঞ্জে শিমুলবাঁক ইউপি চেয়ারম্যানের সমর্থনে ভোটারদের মতবিনিময় সভা       দোয়ারাবাজার উপজেলায় এড. বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু স্মরণে শোকসভা       দক্ষিণ সুনামগঞ্জে মদ, গাঁজা ও নগদ অর্থ সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক       শ্মশানের উপর দিয়ে ফসলরক্ষা বাঁধ, পিআইসি নিয়ে যত প্রশ্ন       দিরাইয়ে খাস জমি দখল নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ৪০       দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে স্বেচ্ছাব্রতীরা কাজ করবে- ড. বদিউল আলম মজুমদার       নির্ধারিত সময়ে হাওর রক্ষা বাঁধের কাজ শেষ না হওয়ায় হাওর বাঁচাও আন্দোলনের সংবাদ সম্মেলন       সস্তা জনপ্রিয়তার শোডাউন নয়, চাই সুনামগঞ্জ জেলার উন্নয়ন মহাপরিকল্পনা    


ডেস্ক নিউজঃ

সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী এম. সাইফুর রহমানের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ শনিবার। ২০০৯ সালের ৫ সেপ্টেম্বর এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন তিনি। 

সাইফুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সিলেট জেলা বিএনপি আয়োজন করেছে দোয়া মাহফিলের। শনিবার বাদ আসর দরগাহে হযরত শাহজালাল (র.) মাজার মসজিদ প্রাঙ্গনে এই দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।  

মরহুম এম. সাইফুর রহমান কর্মময় জীবনে তার অনন্য গুণে মানুষের হৃদয়ে ঠাঁই করে নিয়েছিলেন। দেশ দুনিয়ায় নাম কুড়ানো মৌলভীবাজারের বাহারমর্দনের সেই ছেলেটি দেশের অন্যতম অর্থমন্ত্রী যিনি একনাগাড়ে ১২ বার সংসদে বাজেট পেশ করেছেন। কর্মে তার অনন্য গুণ তিনি উন্নয়নের যে স্বপ্ন দেখতেন তা বাস্তবায়নও করতেন। এটাই তার অবিচল আস্থা বিশ্বাস আর কাজের প্রতি নিখাঁদ আন্তরিকতা ও কর্তব্যকর্মে দ্বায়িত্বশীলতার নজির। নিজ জন্মস্থান মৌলভীবাজারসহ পুরো সিলেট বিভাগেই রয়েছে তার চোখ ধাঁধানো উন্নয়নের ছোঁয়া।

সংক্ষিপ্ত জীবনী: জন্ম ১৯৩২ খ্রিষ্টাব্দের ৬ই অক্টোবর, মৌলভীবাজারের বাহারমর্দনে। গ্রামের মক্তব ও পাঠশালা শেষ করে তিনি ১৯৪০ সালে জগৎসী গোপালকৃষ্ণ উচ্চ ইংরেজি বিদ্যালয়ে ভর্তি হন। এরপর ১৯৪৯ সালে কৃতিত্বের সঙ্গে মেট্রিকুলেশনে উত্তীর্ণ হন। সিলেটের এমসি কলেজ থেকে আইকম পাস করে ১৯৫১ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। ১৯৫৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রাজুয়েশন ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর তিনি ব্যারিস্টারি পড়ার জন্য লন্ডনে চলে যান। সেখানে পৌঁছার পর মত পাল্টে যায় তাঁর, ব্যারিস্টারির পরিবর্তে পড়েন চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্সি। ১৯৫৩-৫৮ সময়কালে পড়াশোনার পর ১৯৫৯ সালে ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ফেলোশিপ অর্জন করেন। ১৯৬০ সালের ১৫ই জুলাই বেগম দুররে সামাদ রহমানের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তিনি ৩ পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জনক। ২০০৩ সালে তার স্ত্রী ইন্তেকাল করেন। ২০০৯ সালের ৫ সেপ্টেম্বর তিনি এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। তার শেষ ইচ্ছানুযায়ী বাহারমর্দনে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।

শান্তিবার্তা ডটকম/২০২০




সুনামগঞ্জে হাওরডুবি হলে দায় প্রশাসন ও পাউবো কে নিতে হবে- হাওর বাঁচাও আন্দোলন

পিকেসিএসবিডির ট্যালেন্ট হান্ট বাছাইয়ে জাতীয় পর্যায়ে সুযোগ পেলেন ছাতকের তিন ক্রিকেটার

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে শিমুলবাঁক ইউপি চেয়ারম্যানের সমর্থনে ভোটারদের মতবিনিময় সভা

দোয়ারাবাজার উপজেলায় এড. বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু স্মরণে শোকসভা

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে মদ, গাঁজা ও নগদ অর্থ সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

শ্মশানের উপর দিয়ে ফসলরক্ষা বাঁধ, পিআইসি নিয়ে যত প্রশ্ন

দিরাইয়ে খাস জমি দখল নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ৪০

দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে স্বেচ্ছাব্রতীরা কাজ করবে- ড. বদিউল আলম মজুমদার

নির্ধারিত সময়ে হাওর রক্ষা বাঁধের কাজ শেষ না হওয়ায় হাওর বাঁচাও আন্দোলনের সংবাদ সম্মেলন

সস্তা জনপ্রিয়তার শোডাউন নয়, চাই সুনামগঞ্জ জেলার উন্নয়ন মহাপরিকল্পনা