ডেস্ক নিউজঃ

কেন্দ্রীয় জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা এ বছর অনুষ্ঠিত হবে না। বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

সম্প্রতি এ দুটি পাবলিক পরীক্ষা না নেওয়ার বিষয়ে অনুমতি চেয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে একটি প্রস্তাবনা পাঠিয়েছিল। ওই প্রস্তাবনা প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদের পর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এসে পৌঁছালে মন্ত্রণালয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানায়।

মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের জানান, আনুষ্ঠানিক পরীক্ষা না নিয়ে বিকল্প মূল্যায়ন পদ্ধতি নিয়ে কাজ করছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এর আগে অনলাইন বৈঠকে করোনা পরিস্থিতি যদি স্বাভাবিক না হয় সেক্ষেত্রে মাধ্যমিক ও উচ্চ পর্যায়ের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণের বিষয়ে বিকল্প মূল্যায়ন পদ্ধতি কী হতে পারে, সে বিষয়ে একটি প্রস্তাবনা তৈরির নির্দেশনা দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। পরবর্তী বৈঠকে উপস্থাপনের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ঢাকা, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর ও জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয় অনলাইন বৈঠকে। 

এর আগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও ইতবেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা কেন্দ্রীয়ভাবে না নেওয়ার সিদ্ধান্ত জানায়। বার্ষিক মূল্যায়ন করে পরবর্তী শ্রেণিতে শিক্ষার্থীদের উত্তীর্ণ করতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানদের নির্দেশনা দেওয়া হবে বলে জানায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

শান্তিবার্তা ডটকম/২৭ আগস্ট ২০২০/বাট্রি