শ্রীলঙ্কা সফরে ন্যূনতম তিন থেকে চারটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে টিম বাংলাদেশ। মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবিতে সফরকারী দলের প্রস্তুতি ম্যাচের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বোর্ডের ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান।

তিনি জানালেন, ‘আমরা তিন-চারটা অনুশীলন ম্যাচ খেলবো। সেখান থেকে বাছাইয়ের সুযোগ থাকবে। সেখানেও নির্বাচকদের অপশন থাকবে। কিছু করার নেইতো যেহেতু সবশেষ ৫-৬ মাস কোনো খেলা নেই।’

এতোদিন শোনা যাচ্ছিল শ্রীলঙ্কা সফরে বাংলাদেশের কোনো প্রস্তুতি ম্যাচ নেই। অর্থাৎ কোনো ম্যাচ প্রস্তুতি ছাড়াই সরাসরি তিন ম্যাচ সিরিজের টেস্টের মূল পর্বে নেমে পড়ার কথা ছিল মুমিনুল হক অ্যান্ড কোংদের। তাতে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন যে করোনায় ৫-৬ মাস ঘরবন্দি থাকার পর কোনো প্রস্তুতি ম্যাচ ছাড়া কী করে আসন্ন এই সিরিজে সফরকারী দলটি পারফর্ম করবে? এতো রীতিমত জেনে শুনে আগুনে ঝাঁপ দেওয়ার মতোই! অবশেষে আকরাম খান দিলেন সুখবর। সফরে টাইগাররা ৩-৪টি অনুশীলন ম্যাচ খেলবে।

কাদের বিপক্ষে? সেটা অবশ্য তিনি উল্লেখ করেননি। শ্রীলঙ্কায় যাওয়ার পরে পরবর্তি পরিস্থিতিতে হয়ত এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের চিরাচরিত নিয়ম অনুযায়ী আয়োজক দেশ যদি প্রস্তুতি ম্যাচের দল দিতে না পারে তাহলে হয়ত বাংলাদেশ হাইপারফরম্যান্স (এইচপি) দলের বিপক্ষেই টাইগারদের খেলতে হবে। এবং জাতীয় দলের সঙ্গে তাদের শ্রীলঙ্কা সফরের অন্যতম কারণ এটিই।

শান্তিবার্তা ডটকম/১৮ আগস্ট ২০২০