শিরোনাম


বিশেষ প্রতিনিধি সুনামগঞ্জঃ

হাওর প্রধান জেলা সুনামগঞ্জে তৃতীয়বারের মতো টানা বৃষ্টিপাতে ও ভারতের পাহাড়ি ঢলের প্রভাবে বিভিন্ন নদ-নদীর পানি দ্রুত বৃদ্ধি হতে শুরু করেছে।

মঙ্গলবার (২১ জুলাই) সকাল থেকে বৃষ্টিপাত শুরু হওয়ার পর থেকে দুপুর পর্যন্ত সুনামগঞ্জে সুরমা নদীর পানি শহরের ষোলঘর পয়েন্টে বিপদসীমার ৩২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যার কারণে আবারও সুনামগঞ্জের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হতে শুরু করেছে।

জানা যায়, সোমবার রাত থেকে সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ৭ সেন্টিমিটার থাকলেও মধ্যরাত থেকে বৃষ্টিপাত বেড়ে যাওয়ায় বিভিন্ন নদ-নদীর পানি দ্রুতগতিতে বাড়তে তাকে। যা মঙ্গলবার দুপুর সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ৩২ সেন্টিমিটার ও পুরাতন সুরমা নদীর পানি ১৬ সেন্টিমিটার উপর দিয়েই প্রবাহিত হতে শুরু করেছে। এ ছাড়া গেল ২৪ ঘণ্টায় সুনামগঞ্জে মোট বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ১২০ মিলিমিটার।

এ দিকে পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিপাতে সুরমা নদীর পানি তৃতীয়বারের মতো বিপদসীমা অতিক্রম করায় শহরের নদীতীরবর্তী এলাকা কাজির পয়েন্ট, উকিলপাড়া, উত্তর আরপিন নগর, নবীনগর এলাকাগুলোতে পানি প্রবেশ অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া হাওরের নিম্নাঞ্চল এলাকায় গুলোতেও বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার আশঙ্কা করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সবিবুর রহমান বলেন, সুনামগঞ্জে টানা বৃষ্টিপাত ও ভারতের পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের কয়েকটি নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি হয়ে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যদি এরকম বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকে তাহলে দীর্ঘস্থায়ী বন্যার আশঙ্কা রয়েছে।

জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল আহাদ বলেন, সুনামগঞ্জে তৃতীয় দফা পানি বৃদ্ধি হওয়ায় আমরা বন্যা মোকাবেলায় সব রকমের প্রস্তুতি নিয়ে রাখা হয়েছে। বন্যার্তদের জন্য খাবার ও আশ্রয়কেন্দ্রসহ সকল ধরণের ব্যবস্থা আমরা ইতিমধ্যে গ্রহণ করেছি।

শান্তিবার্তা ডট কম/২১ জুলাই ২০২০