শিরোনাম


ডেস্ক নিউজঃ

দেশে ভ্রাম্যমাণ আদালতে শিশুদের সাজা দেওয়া অবৈধ ও বাতিল বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া সাজাপ্রাপ্ত শিশুদের ফৌজদারি অপরাধের ইতিহাস গণ্য করা হবে না।

বৃহস্পতিবার রায় প্রদানকারী বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদারের হাইকোর্ট ৩১ পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায়ে স্বাক্ষর করেন।

পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করেছে হাইকোর্ট বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন এই মামলার আইনজীবী ইশরাত হাসান।

হাইকোর্ট রায়ে ১২১ শিশুকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের দেওয়া সাজা বাতিল করে বলা হয়েছে, শিশুদের বিরুদ্ধে যেকোনও অভিযোগের বিচার শুধু শিশু আদালতেই হতে হবে। ভ্রাম্যমাণ আদালত দূরের কথা, অধস্তন আদালতের কোনও বিচারক শিশুদের বিচার করলেও তা হবে বেআইনি।

হাইকোর্ট আরও বলেন, ‘ভ্রাম্যমাণ আদালত প্রদত্ত শিশুদের সাজা শুরু থেকেই অবৈধ এবং আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত। এই ধরনের সাজা শিশুদের ভবিষ্যত জীবনে কোনও আইনগত বা অন্যকোনও প্রভাব ফেলবে না। এই ধরনের মামলা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্যাবলী সংশ্লিষ্ট শিশুদের ফৌজদারি অপরাধের ইতিহাস হিসেবে গণ্য হবে না।’

২০১৯ সালের ৩১ অক্টোবর একটি জাতীয় দৈনিকে ‘আইনে মানা, তবু ১২১ শিশুর দণ্ড’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনে র‌্যাব কর্তৃক ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১২১ শিশুকে সাজা দিয়ে তাদের শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠানোর তথ্য উল্লেখ করা হয়।

ওই একইদিন চিলড্রেন চ্যারিটি বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের পক্ষে প্রতিবেদনটি আদালতের নজরে আনেন ব্যারিস্টার আব্দুল হালিম ও অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান।

শুনানি নিয়ে বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. মাহমুদুর হাসান তালুকদারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ স্বপ্রণোদিত হয়ে রুলসহ আদেশ দেন।

আদেশে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দণ্ডিত হয়ে শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে থাকা ১২ বছরের কম বয়সীদের মুক্তির নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে শিশু আদালত ব্যাতীত অন্যান্য আদালতের অধীনে সাজাপ্রাপ্ত ১২ বছর বয়সী থেকে ১৮ বছর পর্যন্ত বয়সী শিশুদের ছয় মাসের জামিন দেন।

মামলার চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে চলতি বছরের ১১ মার্চ হাইকোর্ট রায় প্রদান করেন। রায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত কর্তৃক শিশুদের সাজাপ্রদান অবৈধ ঘোষণা করা হয়। একইসঙ্গে বিভিন্ন বয়সের ১২১ শিশুকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের দেওয়া সাজা অবৈধ ও বাতিল ঘোষণা করেন আদালত। এরপর রায় প্রদানকারী বিচারপতি দুজনের স্বাক্ষরের পর ৩১ পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায়টি প্রকাশ পেলো।

শান্তিবার্তা ডট কম/২৫ জুন ২০২০