শিরোনাম


মৌলভীবাজার সংবাদদাতাঃ

করোনা পরিস্থিতিতে দেশের নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ঘোষিত আর্থিক সহায়তার জন্য মৌলভীবাজারেরন তালিতায় দরিদ্রদের বদলে বিত্তশালীদের নাম রয়েছে।

কুলাউড়া উপজেলায় ১১ হাজার ৫২১ জন উপকারভোগীর তালিকা প্রস্তুত করেছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। সেই তালিকায় কুলাউড়া পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডের তিনতলা ভবনের মালিকের নামসহ উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে শতাধিক উপকারভোগীর তালিকায় ইউপি সদস্যদের মোবাইল নম্বর পাওয়া যায়। এর মধ্যে উপজেলার শহরতলীর কাদিপুর ইউনিয়নে ১৮ উপকারভোগীর তালিকায় দুই ইউপি সদস্যের মোবাইল নম্বর পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এটিএম ফরহাদ চৌধুরী বলেন, ‘কঠোর হস্তক্ষেপের কারণে সহায়তা তালিকা থেকে ওই বিত্তশালী ব্যক্তির নাম বাদ পড়ে এবং ১৮ জন উপকারভোগীর তালিকা থেকে ইউপি সদস্যদের মোবাইল নাম্বার বাদ দিয়ে উপকারভোগীদের মোবাইল নাম্বার সংযুক্ত করে তালিকা সংশোধন করা হয়।’

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত মানবিক সহায়তা তালিকায় কুলাউড়া পৌরশহরের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মাগুরা এলাকার বাসিন্দা বিত্তবান অমত্ত কুণ্ডুর (৫০) নাম পাওয়া গেছে। অমত্ত কুণ্ডু একটি তিনতলা ভবনের মালিক ও মাগুরা এলাকায় মিষ্টির প্যাকেট তৈরির জন্য তার একটা নিজস্ব দোকান রয়েছে। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর তানভীর আহমদ শাওন ওই বিত্তশালী ব্যক্তির নাম তালিকায় জুড়িয়ে দেন। পরে উপজেলা প্রশাসনের মনোনীত ট্যাগ অফিসার উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. আজহারুল ইসলাম মাঠ পর্যায়ের স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে তালিকা যাচাই-বাছাইয়ের সময় এই অনিয়ম দেখতে পান। বিষয়টি তিনি তাৎক্ষণিক আমাকে জানালে সঙ্গে সঙ্গে সহায়তা তালিকা থেকে অমত্ত কুণ্ডুর নাম বাদ দেওয়া হয়।

উপজেলায় পৌরসভাসহ ১৩টি ইউনিয়নে মোট ১১ হাজার ৫২১টি উপকারভোগী পরিবারের নামের তালিকা প্রণয়নে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কমিটি ইউনিয়ন/পৌরসভা কমিটি তা অনুমোদন করে উপজেলা কমিটিকে দাখিল করে। এরপর উপজেলা প্রশাসন উপকারভোগীদের নামের তালিকা যাচাই-বাছাইয়ের জন্য ১৩টি ইউনিয়নে ও একটি পৌরসভায় মোট ১৪ জন ট্যাগ অফিসার নিয়োজিত করে।

এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সফি আহমদ সলমান জানান, ১১ হাজার ৫২১ জন উপকারভোগীদের নগদ সহায়তার জন্য তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। তালিকা প্রণয়নের পর যাচাই-বাছাইয়ের সময় পৌরশহরের তিনতলা বিল্ডিংয়ের মালিকের নাম পাওয়া যায়। ওই ব্যক্তির নাম তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া, উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে জনপ্রতিনিধি কর্তৃক কিছু অনিয়মের অভিযোগ পেয়েছি। সেটারও সমাধান করে তাৎক্ষণিক তালিকা সংশোধন করা হয়েছে।

শান্তিবার্তা ডট কম/১৭ মে ২০২০