শিরোনাম
  উপকারভোগীদের তালিকা প্রকাশ করে অভিনন্দিত হচ্ছেন ইউপি চেয়ারম্যানরা       সিলেট বিভাগে একদিনে আরও ৩২ করোনা রোগী শনাক্ত       নগদ সহায়তা কার্যক্রমে অনিয়মে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি টিআইবির       করোনায়ঃ কারাগারে বন্দী ঈদ -ফারজানা মৃদুলা       ভয়ংকর কল্পনার স্বপ্নপুরী- আমজাদ হোসাইন       গোলাপগঞ্জে এক রোগীর সংস্পর্শে এসে ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত       ঈদের আগেই বেতন-ভাতা পাচ্ছেন নতুন এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা       হবিগঞ্জে আরও ১১ করোনা রোগী শনাক্ত       সিলেটে আরও ১৮ জনের করোনা শনাক্ত       জগন্নাথপুরের রসুলপুর চিলাউড়া গ্রামের মরহুম মোঃ হাজী সোনা মিয়ার পরিবারবর্গের পক্ষ থেকে নগদ অর্থ বিতরণ    


স্টাফ রিপোর্টারঃ

করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সরকারের পক্ষ থেকে নগদ আড়াই হাজার টাকা সহায়তার উপকারভোগীর তালিকা নিয়ে বাংলাদেশ যখন হুলস্তুল, নিন্দার ঝড় যখন বইছে চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে ঠিক সেই সময়ে একই কাজ নিয়ে অভিনন্দিত হচ্ছেন কিছু চেয়ারম্যান।

হবিগঞ্জে এক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের আত্মীয় স্বজনদের চারটি মোবাইল নম্বর ৩০৬ জনের নামের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে গোটা জেলায়। ঘটনাটি ঘটেছে  হবিগঞ্জ জেলার লাখাই উপজেলার মুড়িয়াউক ইউনিয়ন। এর পর একে একে আড়াই হাজার কাণ্ড বেরিয়ে আসতে থাকে দেশের বিভিন্ন চেয়ারম্যানদের ডিজিটাল কারচুপির মুখরোচক ঘটনা।

এতোসব কারচুপির মধ্যেও নিজের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহীতা নিশ্চিতের চেষ্টা করছেন সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার জাউয়া বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মুরাদ হোসেন ও ধর্মপাশা উপজেলার সুখাইর রাজাপুর উত্তর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফরহাদ আহমদ, দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান, তাড়ল ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ।

তারা তাদের ইউনিয়নের করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সরকারের পক্ষ থেকে নগদ আড়াই হাজার টাকা সহায়তার উপকারভোগীর তালিকা প্রকাশ করেছেন যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। এর পর থেকে অভিনন্দিত হচ্ছেন তারা। এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অন্যান্য ইউনিয়ন এবং পৌর সভার উপকারভোগীদের তালিকা প্রকাশের জন্য দাবি জানাচ্ছেন অনেকে।

শান্তিবার্তা ডট কম/১৭ মে ২০২০