শান্তিবার্তা ডেস্কঃ

আদালতে ‘তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ, ২০২০’ এর গেজেট প্রকাশ করেছে সরকার। শনিবার (৯ মে) রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের পর আইন মন্ত্রণালয় এ গেজেট প্রকাশ করে। এর আগে মামলার বিচার, বিচারিক অনুসন্ধান, দরখাস্ত বা আপিল শুনানি, সাক্ষ্য গ্রহণ, যুক্তিতর্ক গ্রহণ, আদেশ বা রায় প্রদানকালে পক্ষগণের ভার্চুয়াল উপস্থিতি নিশ্চিত করার উদ্দেশে আদালতকে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষমতা প্রদান করে অধ্যাদেশ জারি করেন রাষ্ট্রপতি। সেই অধ্যাদেশটি গেজেট আকারে প্রকাশ করলো সরকার।

এর ফলে ভার্চুয়াল কোর্ট পদ্ধতির দিকে অগ্রসর হলো বাংলাদেশ। তবে ভার্চুয়াল কোর্ট বসাতে এখনও হাইকোর্টের রুলস সংশোধনীর প্রয়োজন রয়েছে। সে ধারাবাহিকতায় ইতোমধ্যে একটি কমিটি গঠন করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

পাঁচ সদস্যের ওই কমিটিতে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি ফারাহ মাহবুবকে সভাপতি করা হয়েছে। এছাড়াও কমিটির সদস্যদের মধ্যে আছেন বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, বিচারপতি জে বি এম হাসান, বিচারপতি সহিদুল করিম ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামান।

আইন অনুসারে উক্ত কমিটি একটি রুলস তৈরি করবে। ওই রুলসের পরিপ্রেক্ষিতে আদালতের বিচারিক ব্যবস্থাপনায় তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারে আর কোনও আইনগত প্রতিবন্ধকতা থাকবে না।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ৬ মে ভিডিও কনফারেন্সসহ অন্যান্য ডিজিটাল মাধ্যমে আদালতের কার্যক্রম চালানোর সুযোগ তৈরি করতে আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ, ২০২০-এর খসড়া নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।

শান্তিবার্তা ডট কম/৯ মে ২০২০/ বাংলা ট্রিবিউন