শিরোনাম


বিশ্বের মহামারী আরেক নাম করোনা,,যার কাছে হেরে গেছে বিশ্বের সকল শক্তি,,আত্মসমর্পণ করছেন বিশ্বের ক্ষমতাশীল ব্যক্তিগন।যার জন্য ধংশ হয়ে যাচ্ছে বিশ্বের অর্থনৈতি।ভেঙে যাচ্ছে বিশ্বের মেরুদণ্ড।
কিন্তু বাংলাদেশ আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত নিয়েছে।যার পরিনতি কি হবে?আমাদের জন্য কি অপেক্ষা করছে আল্লাহ ভালো জানেন।

যার প্রভাবে সীমিত আকারে রয়েছে মসজিদ,মন্দির,গির্জা,সকল ধর্মীয় উপসনালয়গুলো,
বন্ধ রাখা হয়েছে ইসলামিক শিক্ষা সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।বন্ধ রয়েছে প্রায় সকল সরকারি কার্যক্রম,কিন্তু ১০ তারিখ থেকে খোলা হবে শপিংমল,যেখানে বলা হয়েছে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে।
যে দেশে এম্বুলেন্সে করে সিগারেট বিক্রি হয়,,সেই দেশে শপিংমল খোলা রেখে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা বলা,আর
বিড়ালের সামনে শুটকি রেখে খাওয়া যাবেনা মতো।

দেশের মধ্যবিত্ত থেকে নিম্ন আয়ের মানুষের খাবার যোগান করাটাই আজ হিমশিম খাচ্ছে।দিনমজুরি আজ পথহারা পথিকের মতো নিরভে কাধঁছে।মা-বাবা বাচ্চাদের মুখে খাবার দিতে পারছেনা,,কতদিন এমন থাকতে হবে কারো নেই কোন ধারণা,,কতদিন থাকবে সেই অন্ধকার?ঠিক এমন সময় কে করিবে শপিং কার আছে সেই সামর্থ্য?কার আছে সেই স্বপ্ন?
যেখানে এখন পর্যন্ত মুসলমানদের মসজিদে ঢালাউ ভাবে ইবাদত বন্ধ,,হতে পারে ঈদগায়ে জামাত বন্ধ,,,যদি বন্ধ হয়ে যায় সেই ঈদের জামাত কি হবে নতুন পোশাক ক্রয় করে?

যদি দিনমজুর গরীব মধ্যবিত্ত নতুন পোশাক ক্রয় করে ঈদগাহে না-ই যায় তাহলে এ-ই আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত নেওয়ার কি প্রয়োজন ছিলো?
শুধুকি সেই সকল ১০% ভিআইপিদের জন্য এমন সিদ্ধান্ত?

কর্মস্থলে সবার ঈদ হবে?
এই আইনকি শুধু অল্প টাকার চাকরি জীবিদের জন্য?নাকি সবার?শুধু কি জনগণের জন্য,,নাকি এমপি মন্ত্রীদেরসহ?
বিগত লগডাউনে আমরা দেখছি ঢাকা থেকে মন্ত্রী আসতে,,দেখেছি তাদের সচেতনতা কতটুকু,,,দেখেছি তাদের দূরত্বের সমাগম।
লকডাউন বর্তমানে একটু আইন নমনীয় কিন্তু যখন লকডাউন কঠিন ছিলো তখন কিন্তু পুলিশ আসলে লকডাউন চলে গেলে সু-ডাউন দিছে জনগন।তবে কোন জনগণ আন্তঃজেলা ব্যতিত কোথাও জেতে পারেনি।আর এখনতো শপিংমল খোলা এখন জনগণ কি করবে বোঝাই যায়।

সবশেষে এমন হবে নাতো,,যে ১০% লোকের জন্য দেশের আকাশে লাশের গন্ধে ভারী হয় যায়।

মুক্তমত/কলাম বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। shantibarta.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে যার মিল আছে এমন সিদ্ধান্তে আসার কোন যৌক্তিকতা সর্বক্ষেত্রে নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে shantibarta.com-আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় গ্রহণ করে না।  

শান্তিবার্তা ডট কম/৫ মে ২০২০/গিলমান আহমদ