শিরোনাম
  দুই মাস পর করোনা শনাক্ত আবারও হাজারের ঘরে       ইতালি যাওয়ার পথে ক্রোয়েশিয়ায় অতিরিক্ত ঠান্ডায় ছাতকের ২ যুবকের মৃত্যু       প্রিয়া যদি হয়- আলমগীর তালুকদার       বর্ধিত সময়েও হাওরে বাঁধের কাজ শেষ না হওয়ার প্রতিবাদে তাহিরপুরে মানববন্ধন       সিলেটে বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু’র শোক সভা অনুষ্ঠিত       অপরিকল্পিত নলজুর নদী খনন কার্যক্রম পরিদর্শনে বেলা       দৈনিক জৈন্তা বার্তা’র ছাতক প্রতিনিধির দায়িত্ব পেলেন মোশাররফ হোসেন       গণগ্রন্থাগারে সরকারি অনুদান বাড়ানোর দাবি       ফারমিছ আক্তারকে ‘নির্ভীক নারী উদ্যোক্তা সম্মাননা’ প্রদান       সাংবাদিকতায় সফল নারী সুবর্ণা হামিদ    


এক ভয়ানক দুর্যোগের মাঝে দিন কাটাচ্ছি আমরা। মনে হয়না মানুষ এতো বেশি অসহায়্ত্ব উপলব্ধি করেছে কখনো। করোনাভাইরাস এসে সারাদুনিয়ার মানুষগুলোকে নির্বাক করে দিয়েছে।কিন্তু এত বিপদকালীন সময়েও কিছু কিছু ব্যাক্তি/ প্রতিষ্টান, দলমত নির্বিশেষে রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব/ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন গুলো যেভাবে এগিয়ে এসেছে তা এক ভিন্নতার উদাহরন। প্রশাসন থেকে শুরু করে প্রায় প্রতিটা শ্রেনীর মানুষ একে অপরের পাশে দাঁড়াচ্ছেন। এটা ইতিহাস হয়ে থাকবে।সকলকে মনে করিয়ে দিচ্ছে কবি চণ্ডিদাসের মানবিক সেই বাণী “সবার উপর মানুষ সত্য তাহার উপর নাই”।এই বাণী যেনো চির অমর হয়ে রয় মানবজাতির মাঝে ।

করোনা পরিস্থিতির এই ভয়াবহ কালে সিলেটের জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল গ্রীনবাংলার প্রতিষ্ঠাতা বেলাল আহমেদ মুরাদ এর কাছে আসা কিছু স্পর্শকাতর মেসেজ ভীষন ভাবে নাড়া দিয়েছে তাকে। যা কিনা মনে গভীরভাবে দাগ কেটেছে তার।

যে ধরনের পরিবার গুলো মুখ ফুটে কিছু বলতে পারে না কেবলই মনে মনে হাহাকার করে চলছে অবিরত। তাদের সহায়তা করতে লক্ষ স্থির করে নেয় মুরাদ। এই পরিস্থিতি মোকাবেলার উদ্দেশ্যে, আহব্বান জানান সমাজের বিত্তবান বা স্বচ্ছল যারা আছেন তারা যেনো একটু পাশে দাড়ান। এমন দিন আসবে তা কারোরই কল্পনাতে ও ছিলো না। তাই দেশী/প্রবাসী ও বিভিন্ন সংগঠনের কাছে সহযোগীতা চেয়ে তাদের সাড়া পেয়ে এবং নিজেদের মনোবল দৃঢ় করে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে নিজ উদ্যোগে শুরু করেন রাতের আধারে ব্যতিক্রম ধর্মী এই সহযোগিতা।যাতে কেউ না দেখে কেউ না জানে।চুপিসারে করে চলছে এই মানব সেবা।আসুন মানব কল্যাণের এই কাজে নিজেদের অবস্থান থেকে যতটা সম্ভব সংযুক্ত হই।সবাই মিলে জয় করি এই ভয়াবহ মহামারীকে।

বেলাল আহমদ মুরাদ মনে করেন বা বিশ্বাস করেন এই দিন থাকবে না শুধুমাত্র থেকে যাবে এই কঠিন সময়ে দেয়া আপনার/আমার উপহার আর ভালোবাসা। করোনাভাইরাস এ জনগন কে সচেতন করার লক্ষে এই কঠিন দিনেও তার গ্রীন বাংলা করোনা বাস্থবতা নিয়ে ভিন্নরকম নাটিকা করে যাচ্ছে।অভিবাদন জানাই গ্রীনবাংলাকে।

ফোনে কিংবা মেসেজ করে নাম ঠিকানা লিখে দিলেই রাত-বিরেতে খাদ্য উপহার নিয়ে পৌঁছে যায় রাতের অন্তরালের এই জোনাকির দল।খাদ্য সামগ্রীর সাথে থাকছে গ্লাব্স ও মাস্ক।যার ব্যবহার কিনা এই সময়ে অতি আবশ্যক। সম্মান জানাই এই সব মনের মানুষদের যারা কিনা অন্যের সম্মান করতে জানেন। আরো জানেন কি করে ভালোবাসতে হয় একে অপরকে।এরকম মানবতাগুলো বিরল এক সাক্ষী হয়ে থাকবে সকলের হৃদয়ে। ইনশাআল্লাহ এই দূর্যোগ কেটে যাবে আসবে সোনালী দিন।

শান্তিবার্তা ডট কম/৪ মে ২০২০