শিরোনাম


ফারজানা মৃদুলাঃ কোথায় স্বর্গ, কোথায় নরক, কে বলে বলে তা বহুদূর? মানুষেরেই মাঝে স্বর্গ নরক, মানুষেতে সুরাসুর! শেখ ফজলল করিম এর সুন্দর কবিতার কথাগুলোর মর্ম যেন সর্বদা মনে গেঁথে থাকে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে আমাদের মাঝে। এই সংকটকালে মহামাহীর ভয়াবহতা যখন তুঙ্গে,তখনও থেমে নেই নির্মাণ উদ্দোক্তা উন্নয়ন সংগঠন।

সংগঠনের সিনিয়র সভাপতি দিবা খান সকলকে নিয়ে সিলেটবাসীর পাশে দাঁড়ানোর জন্য,নিজের প্রিয় শহরের মানুষগুলোর জন্যে কিছু করার তীব্র তাগীদ অনুভব করে সিদ্ধান্ত নেয় এই সময়ে নিজেদের অবস্থান থেকে কিছু একটা করতেই হবে। যেমনি চিন্তা তেমনি কাজ। শুরু করে দিলো নিজেদের উদ্দ্যোগে নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্ত পরিবার গুলোর মাঝে খাবার সামগ্রী পৌঁছানোর কাজ। এই সংগঠনের জন্ম ১ বছর আগে।শুরু টা ছিলো তাদের যুব সমাজ যেন বিভিন্ন প্রশিক্ষন নিয়ে নিজেদের স্বাবলম্বী করে তোলে। বেকারত্বের অভিশাপ যেন ঘুচে যায় সমাজ হতে।তাদের স্লোগান হলো, চাকরি করবো না, চাকরি দেবো। তারা শুরু থেকে সিলেটে বিভিন্ন এলাকায় সুবিধাবঞ্চিত দের মাঝে মেডিকেল ক্যাম্প করে,শীতবস্ত্র বিতরণ, শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ দিয়ে ভালো কিছু শুরু করে, সুন্দর উদাহরণ সৃষ্টি করে। করোনাভাইরাস কালে এ অবদি প্রায় ১০০০ টিরও বেশী পরিবারের মাঝে এই উদ্দ্যামী তরুনরা সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে। যখন যেখানে প্রয়োজন তারা নিজেরা সাধ্যমত ছুটে গিয়েছে, এই আলোর পথের পথিকরা। রমজান মাসেও থেমে নেই। এই সংগঠনের সদস্যরা যতটা সম্ভব সহায়তা নিয়ে চলছে বিরামহীন ভাবে। ১৫০ জন সদস্য নিয়ে তাদের এই পথচলা।করোনাভাইরাস এর প্রকোপ শুরু হওয়ার পরপরই ফেসবুকে পোষ্ট করে সকলের সহযোগিতা কামনা করে তারা কিছুটা সহযোগীতা পেয়েছে নিজেদের পরিচিত মহল থেকে, বাকী অপূর্ণতাটা নিজেরা মিলে শুরু করে দেয় খাদ্যসামগ্রী নিয়ে সহায়তা করার কাজ।

এই ভাবে যে যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসলে ইনশাআল্লাহ আমরা জয় করতে সক্ষম হবো এই মহামারি দূর্যোগ। হৃদয়জাত এক স্পর্শকাতর সংবিধানের নাম মানবিকতা। মানবকিতার জয় হোক সবখানে সব কালে এটাই আশা করে জাতি। এই আলোর পথিকরা আরো অগ্রসর হোক। শুভ সূচনা করুক নতুনের জয়গান।

শান্তিবার্তা ডট কম/৩ মে ২০২০