বিশেষ প্রতিনিধিঃ

বিশ্বে করোনা ভাইরাসের প্রার্দূভাব বাংলাদেশে বিস্তার লাভ করায় সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঘরে থাকার নির্দেশ মানছেন না সাধারণ মানুষজন।

রবিবার (২৬ এপ্রিল) দুপুর ১২টায় শহরের পৌর মার্কেট এলাকায় সোনালী ব্যাংক শাখায় বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতা তুলতে এসে দেখা যায় সাধারণ মানুষজন নারী-পুরুষ গাদাগাদি করে দীর্ঘ লাইন ধরে দাঁড়িয়ে আছেন।

সোনালী ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, আজ সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার গৌরারং ইউনিয়নের ৩টি ওয়ার্ডের ৩৫০ জনকে বিধবা, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীদের মধ্যে ভাতা প্রদান করা হচ্ছে। কিন্তু সুনামগঞ্জ সদর থানা পুলিশ ও জেলা রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির কর্মীরা ঘটনাস্থলে মাইকিং করে লোকজনকে সরানোর চেষ্টা করলে ও কেউ মানতে চান না কারো কথা। কে কার আগে ব্যাংক থেকে টাকা তুলে নিবেন সেই প্রচেষ্টাই টাকা তুলতে আসা সাধারণ মানুষজনের মধ্যে দেখা যায়। ফলে এই দীর্ঘ লাইনে সচেতন মানুষজন মনে করেন করোনা ভাইরাসের মহামারী কিভাবে যে সুনামগঞ্জে প্রকট আকার ধারন করে তা একমাত্র আল্লাহ ছাড়া কেউ বলতে পারবেন না।

এ ব্যাপারে দায়িত্ব পালনকারী রেড ক্রিসেন্টর সদস্যরা জানান, পুলিশ বাহিনীর সাথে সমন্বয় করে সাধারণ মানুষজনকে বুঝিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ সোনালী ব্যাংক শাখার ম্যানেজার মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা ব্যাংক কৃর্তপক্ষ চেষ্টা করতেছি কিন্তু সাধারণ মানুষজনকে কোনভাবেই সরানো যাচ্ছেনা। তিনি ঘটনাটি সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সদর মডেল থানা পুলিশ ও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সদস্যদের ইনফর্ম করা হয়েছে বলে তিনি জানান। তিনি আরো বলেন, এখন মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে খুবই ক্রাইসেস সময় অতিবাহিত হচ্ছে। আগে প্রতিদিন একটি ইউনিয়নে দেয়া হতো কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে তিনটি ওয়ার্ড করে এই ভাতাগুলো প্রদান করা হচ্ছে।

শান্তিবার্তা ডট কম/২৬ এপ্রিল২০২০/শাহিন আলম