শিরোনাম
  বিধি-নিষেধ শিথিলতার মেয়াদ আর বাড়ছে না,চলবে ৫ আগস্ট পর্যন্ত       জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সাকিবের ব্যাটে বাংলাদেশের সিরিজ জয়       মাগুরায় সরকারি ভাতাভোগীর টাকা অন্যের মোবাইলে       অ্যাডভোকেট শফিকুল আলমের মৃত্যুতে পরিকল্পনামন্ত্রীর শোক       পল্লীবন্ধু হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল       পাগলা বাজারে মনসুর ফ্যাশনের উদ্বোধন       নরসিংদীতে কাভার্ডভ্যান-লেগুনা সংঘর্ষে নিহত বেড়ে ৬       মেসেঞ্জারে ঢাবি ছাত্রীকে হেনস্তা, তদন্ত কমিটি গঠন       সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করোনা আক্রান্ত       ইভ্যালি’র কার্যালয়ে তালা, হটলাইনেও মিলছে না সাড়া!    


Spread the love

পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ এমপি    

বিআর-২৯জাতের ধান পাকতে সুনামগঞ্জ আরো এক সপ্তাহ দরকার। এই ধান উচ্চ ফলনশীল। তবে ধান পাকতে অন্য জাতের ধানের চেয়ে বেশী সময় লাগে। আশার বিষয় হল সুনামগঞ্জে গতকাল সুরমা নদীর পানির উচ্চতা ছিল ১.৯৩ মিটার। সাধারনত উচ্চতা ৫.৫ মিটার হলে বিপদসীমার উপরে বলা হয়। বিআর ২৯ ছারা অন্য জাতের ধান ঘরে উঠানো নিয়ে এখন তেমন শংকা নেই। বিআর ২৯ জাতের ধান সময় বেশী লাগে বলে সেটি রোপন ও করা হয় হাওরের তুলনামুলক উচু স্থানে।

আমার নির্বাচনী এলাকা সুনামগঞ্জ সদর ও বিশ্বম্ভরপুর নিয়ে বিশাল আয়তনের করচার হাওর। ধানের মা খ্যাত করচার হাওরের ধান এখন কৃষকের আয়ত্বে আছে। এই হাওরে জলাবদ্বতার আশংকা করলেও স্থানীয় লোকজন অভিজ্ঞতায় বলছেন সমস্যা হবেনা।
এখন নজরদারী বাড়ানো দরকার ফসল রক্ষার ডুবন্ত বাঁধের প্রতি। আগাম বন্যা বা ফ্লাশ ফ্লাড থেকে ফসল রক্ষায় এ সমস্ত বাঁধ নির্মান করা হয়। আগে ঠিকাদারী ব্যাবস্থায় বাঁধ নির্মান করা হত। ২০১৭ সালের ফসলহানীর পর ঠিকাদারী বাতিল করা হয়।স্থানীয় লোক দিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিঠি (পিআইসি)র মাধ্যমে বাঁধ নির্মান করা শুরু হয়। তদারকি করেন জেলা-উপজেলা প্রশাসন এবং পানি উন্নয়ন বোর্ড।

ঠিকাদারী ব্যাবস্থার সময়ের চেয়ে এখন বাঁধ নির্মানে বরাদ্দও বেশী। এবছর বাঁধ নির্মানে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ১শত ৩২কোটি টাকা। যথেস্ট পরিমান বরাদ্দ। বিপুল বরাদ্দের বাঁধের কাজ সঠিক হয়ে থাকলে তেমন শংকার কথা নয়। বড় বন্যা না হলে ধান কাটার মত সময় বাঁধ গুলো পানি আটকে রাখার কথা। যারা বাঁধের সাথে সংশ্লিষ্ট তারা বাঁধে যান। কৃষকদের আতংকিত না করে বাঁধ মজবুত রাখেন। এবার আমাদের লক্ষ্যমাত্রা প্রায় ১৩ লক্ষ মেট্রিকটন ধান। ইনশাহআল্লাহ আমাদের ফসল ঘরে উঠবে আল্লাহর রহমতে।
২৬.০৪.২০

শান্তিবার্তা ডট কম/২৬ এপ্রিল২০২০