শিরোনাম
  করোনা আক্রান্ত ছিলেন অধ্যাপক আনিসুজ্জামান       সুনামগঞ্জে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষা বৃত্তি ও বাইসাইকেল বিতরণ       করোনা ভাইরাস আতঙ্কে মানসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষায় করণীয়       সিলেটে আরো ২ জন করোনা পজিটিভ       পদক্ষেপ’র সুরমা ব্রাঞ্চের আওতায় ৯৬ টি পরিবারে নগদ টাকা ও ২০০ টি পরিবারে খাদ্য সামগ্রী বিতরন       দোয়ারাবাজারের খাসিয়ামারা বালুমহাল ইজারা না দেওয়ার দাবি       সিলেটে করোনায় মারা যাওয়া কারাবন্দির লাশ নেয়নি পরিবার       কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রথম দু’জন করোনায় আক্রান্ত       ৩০ মে পর্যন্ত ছুটিতে যেসব বিধি-নিষেধ মানতে হবে       ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা, বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ    


দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশজুড়ে বন্ধ রয়েছে সব ধরনের ব্যবসা,বাণিজ্য ও যোগাযোগ ব্যবস্থা। স্থবির জনপদে কর্মহীন হয়ে সবচেয়ে বেশি সংকটে পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষেরা। কোনোমতে দিনযাপন করছেন তারা।

এদিকে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে করোনা ভাইরাস আতঙ্কে নিম্ন আয়ের মানুষ গৃহবন্দী। দুর্বিপাকে পড়া সাধারণ মানুষ অনেকটাই অসহায়। এমন অবস্থায় ‘মানুষ মানুষের জন্য’ সামাজিক দায়বদ্ধতায় মানবিক মূল্যবোধকে ধারন করে কর্মহীনদের পাশে দাঁড়িয়েছেন সুনামগঞ্জ জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পূর্ব পাগলা ইউনিয়নের দামোধরতপী,মামদপুরের গ্রামের “মোহনচূড়া” সংগঠন।

গত ১০ এপ্রিল ২০২০ খ্রি. হইতে (প্রতিদিন ৩-১০টি পরিবার) বাড়ি বাড়ি গিয়ে কর্মহীন, অসচ্ছল, অসহায় পরিবারের মাঝে মাক্সসহ নিত্য প্রয়োজনীয় চাল, ডাল, পেয়াজ, আলু, লবণ, সাবান পৌঁছে দেওয়া চলমান রেখেছেন “মোহনচূড়া” সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

মোহনচূড়া সংগঠনের সদস্যবৃন্দ জানান, মানবতার উপহার নিয়ে প্রতিনিয়ত আমরা যাচ্ছি মানুষের দোরগোড়ায়। আমরা একদম অসহায়, কর্মহীন পরিবারকে মানবতার উপহার পৌছে দিচ্ছি।

২৫ এপ্রিল আজও দামোধরতপী,মামদপুর গ্রামের ০৮ টি কর্মহীন, অসচ্ছল পরিবারকে (অন্যান্য তালিকার বাহিরে যারা) তাদের কাছে পৌছে দেওয়া হয় মানবতার উপহার, এমন উপহার সামগ্রী চলমান থাকবে অসহায় মানুষের জন্য, প্রতি পরিবারে ৫০০/- মূল্যের খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেওয়া হচ্ছে।

২৫ এপ্রিল ২০২০ খ্রি. পর্যন্ত টিম মোহনচূড়ার সদস্যবৃন্দ হলেন – ১.কেবি প্রদীপ দাশ ২.ওবায়দুল হক মিলন,৩.জাহাঙ্গীর হোসেন,৪.মোঃ বেলাল আবেদিন,৫.মইন উদ্দিন, ৬.মিন্টু সুত্রধর,৭.সৈয়দ মিজান আহমেদ,৮.লিটন সুত্রধর, ৯.নকুল সুত্রধর,১০.দুর্জয় সুত্রধর, ১১.শহিদুল ইসলাম রেদোয়ান, ১২.শফরুল জাকুয়ান ইসলাম, ১৩.ফাহিম আহমেদ, ১৪.তৃপ্তি শ্যামান্ত দাশ, ১৫. ফারহানা মাহজাবিন তিথি, ১৬.জুয়েল দেবনাথ, ১৭.আমিনুল হক আমিন, ১৮. আহমেদ আল কবির চৌধুরী, ১৯.মো.রিপন রহমান, ২০.আল-আমিন, ২১. সৈয়দ শিপা আহমেদ,২২.সুদিপ দাশ,২৩.সৌরভ সূত্রধর, ২৪. আব্দুর নূর ময়না, ২৫.জুয়েল দেবনাথ,২৬.জয়ন্ত দেবনাথ।

মোহনচূড়ার পক্ষ থেকে মানবতার বন্ধু হিসেবে, সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে “মানবতার ডাকপিয়ন” হয়ে যে কাউকে আর্থিক/পারিশ্রমিক/মানসিক ভাবে মানবতার কল্যাণে অংশ গ্রহন করতে আহব্বান জানানো হয়।

শান্তিবার্তা ডট কম/২৫ এপ্রিল২০২০