দিরাই সংবাদদাতাঃ

সারাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলসহ সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন হাওরে বোরো ধান কাটার মৌশুম চলছে ৷ সুনামগঞ্জের বিভিন্ন হাওর গুলোতে কৃষকদের সারা বছরের পরিশ্রমের ফসল তোলা হয় এই বৈশাখ মাসে সোনালী ধান ঘরে তোলার মধ্য দিয়ে৷ নবান্নের ধান ঘরে তুলে কৃষক যেমন আনন্দিত হয় ঠিক তেমনি আনন্দিত হয় সারা দেশের মানুষ ৷ কিন্তু হাওরে ধানের প্রচুর ফলন হওয়া স্বত্তেও কৃষকের মুখে চিন্তার দাগ ৷ মহামারী করোনা ভাইরাসের জন্য বৃহত্তর সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন হাওরে ধান কাটার জন্য বেপারি পাওয়া যাচ্ছে না যার দরুন অসহায় দরিদ্র কৃষকদের কপালে চিন্তার ভাজ ৷

এর মধ্যে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন নির্দেশ দিয়েছেন অতিশীঘ্রই ধান কাটার জন্য কারন হিসেবে বলা হয়েছে যে চলতি মাসের ২৯ তারিখের মধ্যে বন্যা হবার খুবই সম্ভাবনা রয়েছে ৷ যার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা গুরুত্বের সঙ্গে নির্দেশ দিয়েছেন উনার দলীয় নেতাকর্মীদের যেন আওয়ামীলীগ সহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা এক হয়ে অসহায় কৃষকদের পাশে দাড়ানোর জন্য।

যার ফলে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের আহবায়ক খায়রুল হুদা চপলের নির্দেশ অনুযায়ী সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য ও দিরাই উপজেলা যুবলীগের সংগ্রামী সভাপতি বাবু রঞ্জন কুমার রায়ের নেতৃত্বে (২২ এপ্রিল ২০২০) খি. দিরাই উপজেলা যুবলীগ আজ সকাল থেকে সন্ধ্যা অবধি দিরাই উপজেলার ঘাগটিয়া গ্রামের পিযুষ দাসের চার কেয়ার ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছে ৷

এক লাইভ ভিডিওতে দিরাই উপজেলা যুবলীগ সভাপতি বাবু রঞ্জন কুমার রায় বলেছেন যে, অতীতেও দিরাই উপজেলা যুবলীগ সবসময় দিরাই উপজেলার মানুষদের সুখে দুখে পাশে এসে দাড়িয়েছে এবং অসহায় মানুষদের পাশে দিরাই উপজেলা যুবলীগ সবসময় থাকবে৷ দিরাই উপজেলার যে কৃষকরা টাকার অভাবে অথবা মানুষের অভাবে ধান কাটতে পারছেন না তাদেরকে যথাসাধ্য সাহায্য করার অঙ্গিকার করেছেন তিনি , বক্তব্যে  আরো বলেছেন দিরাই উপজেলা যুবলীগের প্রতিটা ইউনিয়নের নেতাকর্মীদের কাছে অনুরোধ করা হয়েছে যেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার আহবান অনুযায়ী অসহায় কৃষকদের পাশে যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী দাঁড়াবার জন্য৷

জমির মালিক পিযুষ দাস এক প্রশ্নের উত্তরে দিরাই উপজেলা যুবলীগকে ধন্যবাদ দিয়েছেন এবং বলেছেন কেয়ার প্রতি দুই হাজার টাকা দেয়ার মতো উনার সামর্থ্য নেই বলে উনি উনার জমির ধান পাকা থাকা সত্ত্বেও উনি কাটতে পারছিলেন না ৷

আজকের ধান কাটার সময় উপস্থিত ছিলেন দিরাই উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জনাব মোহন চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা এহিয়া চৌধুরী, শুকরনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবু বিশ্বজিৎ চৌধুরী, যুবলীগ নেতা রায়হান মিয়া, বিদ্যুৎ রায়, কাইয়ুম মিয়া, মোহাম্মদ আযহার, জুয়েল,বদরুল, রাগীব আলি সহ আরো অনেকে ৷

শান্তিবার্তা ডট কম/২২ এপ্রিল২০২০/শিপলু রায়