শিরোনাম


শান্তিবার্তা বিশেষ প্রতিনিধিঃ

সরকারের সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচির আওতায় আরও ৫০ লাখ মানুষকে নিয়ে আসা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, রেশন কার্ডের মাধ্যমে দেশের ৫০ লাখ মানুষকে সামাজিক সুরক্ষার আওতায় সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। আরও ৫০ লাখ মানুষকে সুরক্ষার আওতায় নিয়ে আসা হবে। যারা প্রকৃত অভাবী, তাদের রেশন কার্ড দিয়ে তার মাধ্যমে সহায়তা করা হবে।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) গণভবন থেকে ঢাকা বিভাগের ৯ জেলার প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময়ে এসব কথা বলেন তিনি। এই জেলাগুলো হলো— ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, নরসিংদী, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, শরীয়তপুর, মাদারীপুর ও গোপালগঞ্জ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য ১০ টাকা দরে ওএমএস কর্মসূচির আওতায় চাল বিতরণ করা হয়। তবে এই চাল কিনতে গিয়ে অনেক জায়গায় জনসমাগম দেখা দেয়, যা করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকির কারণ। তাই আমরা আপাতত এই ১০ টাকার চাল বিতরণের কর্মসূচি স্থগিত করেছি। তবে সামাজিক সুরক্ষার আওতা আমরা বাড়াচ্ছি। পরে আবার আমরা এই কর্মসূচি চালু করব।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সামাজিক সুরক্ষার আওতার বাইরে অনেকেই আছেন, যারা বর্তমান পরিস্থিতিতে অভাবের মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছেন, কিন্তু মুখ ফুটে বলতে পারছেন না। সমাজের নিম্ন আয়ের ব্যক্তি যারা আছেন, এমন সব মানুষের তালিকা তৈরি করতে হবে। তাদের তালিকা করে রেশন কার্ড দিতে হবে। এর মাধ্যমে মোট এক কোটি মানুষ সামাজিক সুরক্ষার আওতায় আসবে।

তিনি আরও বলেন, জাতিসংঘসহ বিশ্বের আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো বলছে, করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দিতে পারে। বাংলাদেশেও অর্থনৈতিক সংকট দেখা দিতে পারে। সে কথা চিন্তা করেই আমরা ৯২ হাজার কোটি টাকা, বলতে গেলে প্রায় এক লাখ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ প্রণয়ন করেছি। সেখানে শুধু এখনকার জন্য নয়, আগামী তিন বছর কিভাবে অর্থনৈতিক সুরক্ষা দেওয়া যাবে, সে পরিকল্পনা আছে, সে পরিকল্পনা আমরা নিচ্ছি।

শান্তিবার্তা ডট কম/১৬ এপ্রিল২০২০/