শিরোনাম


Spread the love

শান্তিবার্তা ডেস্কঃ করোনাভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হওয়ার ১০ দিন পর যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু অবস্থা খারাপ হওয়ায় লন্ডনের সেন্ট থমাস হাসপাতালে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে। তিনি নিজে থেকে নিঃশ্বাস নিতে পারছেন না। এমন তথ্য জানিয়েছে বৃটিশ গণমাধ্যম মেট্রো।

বরিসের চিকিৎসক তাকে পরীক্ষা করার পর হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেন। তারপরই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১০ দিন হলো বরিস জনসনের শরীরে করোনা ধরা পড়ে। তারপর থেকে তিনি হোম আইসোলেশনে ছিলেন। কিন্তু ১০ দিন পরেও তার শরীরে করোনার উপসর্গ সমানমাত্রায় দেখা যাওয়ায় চিকিত্‍সক আর ঝুঁকি নিতে চাননি। তাই তাকে আইসিইউতে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে।

বৃটিশ গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, রোববার (৫ এপ্রিল) রাতে হাসপাতালেই ছিলেন প্রধানমন্ত্রী জনসন। আরো কয়েকদিন তাকে হাসপাতালেই থাকতে হচ্ছে। গত মাসের শেষের দিকে করোনা পজেটিভ হওয়ায় আইসোলেশনে ছিলেন জনসন। কিন্তু রবিবার রাতে তার শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক বলছেন যে, জনসনের আরও বেশ কিছু শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন রয়েছে। সেখানে তার অক্সিজেন লেভেল, শ্বেত রক্তকণিকা, লিভার ও কিডনির পরীক্ষা করা হবে।

গত ২৭ মার্চ বরিসের শরীরে প্রথম করোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায়। তবে সে সময় করোনা খুব হাল্কাভাবে তার শরীরে অবস্থান করছিল। এদিকে, বরিস জনসনের হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার খবর পাওয়ার পর ব্রিটেনের অনেক সাংসদ বরিসকে দ্রুত আরোগ্য কামনার শুভেচ্ছা পাঠিয়েছেন।

সূত্র-SP