শিরোনাম


শান্তিবার্তা ডেক্স: সুনামগঞ্জে শিশু তুহিন হত্যা মামলায় চাচাতো ভাইকে আট বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। জানা গেছে, তার ১৭ বছর বয়সী কিশোর চাচাতো ভাইকে আট বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে আজ। সুনামগঞ্জের শিশু আদালতের বিচারক মো. জাকির হোসেন এ রায় দেন।

তুহিন হত্যার ঘটনায় তার মায়ের (মনিরা বেগম) দায়ের করা মামলায় ৫ আসামির মধ্যে তার চাচাতো ভাই শিশু হওয়ায় তার বিচার হয়েছে শিশু আদালতে এবং মামলার অন্য চার অভিযুক্ত তুহিনের বাবা আবদুল বাছির (৪০), তিন চাচা নাসির উদ্দিন (৩৫), আবদুল মছব্বির (৪৫) ও জমসেদ আলীর (৬০) বিচার হচ্ছে সুনামগঞ্জে দায়রা জজ আদালতে। আদালতে মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য করা হয়েছে আগামী ১৬ মার্চ।

শিশু আদালতের সূত্রে জানা গেছে, মামলার সাক্ষ্যপ্রমাণে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় এবং আসামী শিশু হওয়ায় তাকে আট বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ১৮ বছরের আগ পর্যন্ত তাকে কিশোর সংশোধনাগারে থাকতে হবে। পরে তাকে সুনামগঞ্জ জেলা কারাগারে পাঠানো হবে।

উল্লেখ্য, গত বছর ১৪ অক্টোবর সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের কেজাউরা গ্রামে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সকালে বাড়ির পাশের একটি গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় তুহিনের গলা, দুই কান ও যৌনাঙ্গ কাটা এবং পেটে বিদ্ধ দুটি ছুরিসহ তুহিনের রক্তাক্ত লাশ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় তুহিনের মা মনিরা বেগম বাদী হয়ে পরের দিন অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে দিরাই থানায় মামলা করেন। মামলায় পুলিশ তুহিনের বাবা, তিন চাচা ও এক চাচাতো ভাইকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশ তুহিন হত্যা মামলায় গত ৩০ ডিসেম্বর এই পাঁচজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দায়ের করলে আদালতে মামলার অভিযোগ গঠন হয় ৭ জানুয়ারি এবং ৪ মার্চ আদালতে উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়।